চোরাই মোটরসাইকেলসহ ১৮ মামলার আসামী গ্রেফতার

0
141

শরীয়তপুর প্রতিনিধি ॥ চোরাই মোটরসাইকেল ও অটোরিক্সাসহ আন্তঃজেলা চোর চক্রের ৫ সদস্যকে গ্রেফ-তার করেছে শরীয়তপুর জেলা পুলিশ। শরীয়তপুরের বিভিন্ন এলাকায় ও অন্যান্য জেলায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতদের আদালতে প্রেরণ করে ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে।

রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করে চুরির রহস্য উদঘাটন করা সম্ভব হবে বলে পুলিশ ধারণা করেছেন। ১৮ জুলাই দুপুরে পুলিশ সুপারের সম্মেলন কক্ষে প্রেস ব্রিফিং এর মাধ্যমে এই তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। প্রেস ব্রিপিং থেকে জানাগেছে, বিভিন্ন সময় জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে মোটরসাইকেল চুরি হতে থাকে।

ইতোমধ্যে পুলিশের সাবেক মহাপরিদর্শ একেএম শহিদুল হক এর বাড়ি থেকে ২টি মোটরসাইকেল চুরি হয়। সেই থেকে পুলিশ চোর চক্রের রহস্য উদঘাটনে শোচ্চার হয়। প্রথমে চোর চক্রের এক সদস্যকে গ্রেফতার করে জিজ্ঞাসাবাদের মাধম্যে চুরির রহস্য উদঘাটন হতে শুরু করে।

পুলিশ একেএকে চোর চক্রের মুলহোতা হত্যা, মাদক, ডাকাতি, চুরি ও অস্ত্রসহ ১৮ মামলার আসামী সখিপুরের আব্বাস বেপারী, ৩টি চুরি মামলার আসামী দুলাল খা, শতাধিক মোটরসাইকেল চোর নড়িয়ার স্বপন মাদবর, পালং এর দবির তালুকদার ও পটুয়াখালী জেলার দশমিনার খায়রুল চোকদারকে গ্রেফতার করা হয়।

পরে তাদের দখল থেকে ৬টি মোটরসাইকেল ও ১টি অটোরিক্সা উদ্ধার করে। পুলিশ সুপার ও নড়িয়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের দিক নির্দেশনায় অভিযান পরিচালনায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে নড়িয়া থানা পুলিশের উপ- পরিদর্শক হায়দার আলী।

প্রেস ব্রিফিং থেকে পুলিশ সুপার এস.এম. আশরাফু জ্জামান বলেন, এই চোর চক্রটি দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে মোটরসাইকেল চুরি করে থাকে। চুরির কৌশল হিসেবে তারা বিভিন্ন সময় কল মিস্ত্রী, রাজমিস্ত্রী সেজে এলাকায় ঘোরাফেরা করে মোটরসাইকেলের সন্ধান করে।

পরবর্তীতে সুযোগ বুঝে সেই মোটরসাইকেল চুরি করে। এবার মোটরসাইকেল চোর চক্রের মূলহোতাকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়েছে। রিমান্ডে এনে তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করে আরো তথ্য উদঘাটন করা সম্ভব হবে।

প্রেস ব্রিফিংয়ে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নড়িয়া সার্কেল মো. মিজানুর রহমান, অফিসার ইনচার্জ নড়িয়া মাহাবুব রহমান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here