দেলদোয়ার-লাউহাটিতে আনিসুর রহমানের গলাকাটাঁ লাশ উদ্ধার !

0
448
টাংগাইল-দেলদোয়ার থানার লাউহাটির হেরন্ড পাড়া গ্রামের জৈনক আনিসুর রহমানকে গলা কেটেঁ হত্যার অভিযোগ উঠেছে কতিপয় দৃবৃর্ত্তের বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার স্থানীয় পাচুরিয়ার ধলেশ্বরী খালপাড় এলাকা হতে তার গলা কাঁটা লাশ উদ্ধার করা হয়।
আনিস মিয়া লাউহাটির হেরন্ড পাড়া গ্রামের কুরবান আলীর ছেলে। তিনি ক্লিনিক ও হোটেল ব্যবসার সাথে জড়িত ছিলেন। তাছাড়া স্থানীয় পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সাবেক পরিচালকের দায়িত্ব ও পালন করেছেন।
পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ১৬ই নভেম্বর ২০২০ ইং সোমবার দিবাগত রাত অনুমানিক ১২: ৪৫ মোবাইল ফোনে কে বা কারা ডেকে নিয়ে যায়। তারপর আর ঘরে ফিরেনি। পরের দিন মঙ্গলবার সকালে স্থানীয় কিছু লোক পাচুরিয়া খালপাড়ে গলা কাটাঁ অবস্থায় তার লাশ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দিলে, দেলদোয়ার থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।
দেলদুয়ার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাদেকুল ইসলাম সংবাদ মাধ্যমকে জানান, পুলিশ প্রাথমিক ভাবে ধারনা করছে, পারিবারিক কোন্দল কিম্বা ব্যবসায়ী কারণে এমটি ঘটতে পারে। তবে ময়নাতদন্তের পর হত্যার সঠিক কারণ জেনে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
নিহতের  স্ত্রী জানান, মঙ্গলবার টাঙ্গাইল আদালতে একটি মামলা থাকায় আমি আদালতে হাজিরা দিতে যাই। বিকেলে শুনি বাড়ির পাশের খাল থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। জমিসংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে তাকে হত্যা করা হয়ে থাকতে পারে ।
ইতিমধ্যে নিহতের পরিবার ৩ জনকে সন্দেহভাজন আসামী করে দেলয়োর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে। আসামীরা হলেন-শাহদাৎ হোসেন পিতা-আনোয়ারুল ইসলাম, রুবেল মিয়া পিতা-বোবা মিয়া এবং রফিক মিয়া পিতা-আবুল কালাম। এদের মধ্যে রফিক মিয়া সম্পর্কে নিহতের নিকট আত্মীয় বলে জানা গেছে।
মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম/ বাংলাটপনিউজ২৪.কম

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here