গৃহবধূ নিহতের ঘটনায় পাষান্ড স্বামী আটক

0
72

নিজস্ব প্রতিবেদক: ১ সন্তানের জননী নুরতাজ (২৬) নামে এক গৃহবধূ
মৃতদেহ উদ্ধার করেছে সদর মডেল থানা পুলিশ। ৩জুন শুক্রবার সকাল ৭টায় শহরের ২নং বাবুরাইলস্থ শামছুল হকের বাসার শয়নকক্ষে থেকে ওই
মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য র্মগে প্রেরণ করে পুলিশ।

এ ঘটনায় স্থানীয় জনতা ঘাতক স্বামী আউয়াল হোসেন (৩২)কে আটক
করে সদর মডেল থানা পুলিশে সোর্পদ করেছে। আটককৃত স্বামী আউয়াল হোসেন সুদূর চাঁদপুর জেলার মতলব থানার নিশ্চিন্তপুর এলাকার গিয়াস উদ্দিন বেপারী ছেলে বলে জানা হেছে।

৩মে শুক্রবার সকাল ৮টায় শহরের ২নং বাবুরাইলস্থ শামছুল হক মিয়ার বাসার শয়নকক্ষে থেকে ওই মৃতদেহটি উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত নুরতাজ সদর মডেল থানার ২নং বাবুরাইল এলাকার শামছুল হক মিয়ার মেয়ে বলে জানা গেছে।

এ ব্যাপারে নিহত গৃহবধূ বড় ভাই শাকিল আহাম্মেদ বাদী হয়ে আটককৃত ঘাতক স্বামী আউয়ালসহ ৫ জনের নাম উল্লেখ্য করে সদর মডেল থানায়
আত্মহত্যা প্ররোচনায় একটি মামলা দায়ের করেন।

এ ব্যাপারে নিহত গৃহবধূর পিতা শামছুল হক ও অভিযোগের বাদী শাকিল গনমাধ্যমকে জানান, গত ৭ বছর পূর্বে আমার মেয়ে নুরতাজকে প্রেমের সম্পর্ক করে বিয়ে করে চাঁদপুর জেলার মতলব থানার নিশ্চিন্তপুর এলাকার গিয়াস উদ্দিন বেপারী ছেলে আউয়াল হোসেন।

পরে তাদের সংসারে আয়ান হোসেন নামে ৫ বছরের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। স্বামী আউয়াল হোসেনের আর্থিক অবস্থা খারাপ থাকার কারনে নুরতাজ তার স্বামীকে নিয়ে আমাদের বাড়িতে বসবাস করছে।

আমার মেয়ের গায়ের রং কালো হওয়ার কারনে পাষান্ড স্বামী আউয়াল ও তার ভাই ফজলুর রহমান, বোন লাভলী,শিউলী ও স্বপ্না বেগম বিভিন্ন সময়ে আমাদের কাছে ও আমার মেয়ের কাছে ৫লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে।

দাবিকৃত টাকা না পেলে পাষান্ড স্বাসী আউয়ালের উল্লেখিত ভাইবোনেরা আউয়ালকে অন্যত্র স্থানে বিয়ে করাবে বলে আমার মেয়েকে ও আমাদের কে হুমকি দামকি দিয়ে আসছিল।

এর ধারাবাহিকতায় গত ৩মে শুক্রবার রাতে যে কোন সময় আমার মেয়ে নুরতাজকে পরিকল্পিত ভাবে বিষাক্ত কিছু সেবন করিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর ফাঁসিতে ঝুলিয়ে আত্মহত্যা প্রচারের চেষ্টা চালায়।

এ ব্যাপারে সদর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক আনোয়ার গন মাধ্যমকে জানান, এলাকাবাসীর মাধ্যমে সংবাদ পেয়ে আমিসহ আমার র্ফোস দ্রুত ঘটনাস্থলে হাজির হয়ে শামছুল হক মিয়ার বাড়ির একটি শয়নকক্ষের মেঝে থেকে গৃহবধূর মৃতদেহটি উদ্ধার করি। পরে লাশটি ময়না তদন্তের জন্য র্মগে প্রেরণ করি।

আটককৃত স্বামী আউয়ালকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।এ ব্যাপারে থানায় আত্মহত্যা প্ররোচনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here