ঝিনাইদহে শীতের আগমনে শুরু হয়েছে জমজমাট বেঁচাকেনা

0
117
জাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহঃ ঝিনাইদহ এলাকার বাজার গুলোতে ঘুরে দেখা গেছে রাস্তার দু পাশের ফুটপাতে ক্রেতা বিক্রতা শীতকে ঘিরে ব্যস্ত সময় পার করছে। গত কয়েকদিন ধরে শীতের তীব্রতা বেড়ে যাওয়ায় ফুটপাতের দোকানগুলোতে ভিড় জমাচ্ছে ক্রেতারা।
ফুটপাতের বিক্রিতাদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, ফুটপাতে উলের সোয়েটারের দাম পাচ্ছে ক্রেতারা ১৫০ থেকে ৩০০ টাকায়। জ্যাকেট ১৫০ থেকে ৪০০ টাকায়। ফুলহাতা গেঞ্জি ও বাচ্চাদের জামা সেট ৫০ থেকে ১২৫ টাকা পর্যন্ত। শীতের পোশাক কিনতে আসা বারবাজার ইউনিয়নের বাসিন্দা মিতু বেগমের সাথে কথা বললে তিনি জানান, অনেক খুজা খুজির পর আমার ছেলে মেয়েসহ পরিবারের লোকজনের জন্য সোয়েটারসহ কয়েকটি শীতের কাপড় কিনেছি। এবং নিজের জন্য একটি উলের সোয়েটার কিনেছি।
শীত বেশী পড়ার কারণে দোকানীরাও দাম বেশি চাচ্ছে। অনেক দর – দামের পর ট্রাউজার ৩ টি কিনেছি ৩০০ টাকায় ও আমার শ^াশুরীর জন্য ১ টি সোয়েটার কিনেছি ১৪০ টাকায়। অন্য সময় এগুলো ৬০-৭০ টাকায় পেতাম। আমরা স্বল্প আয়ের মানুষ। কম দামে ভালো কিছু কাপড় পাওয়া যায় ফুটপাতে। তাই আমাদের শেষ ভরসা ফুটপাত।
ত্রিলোচানপুর ইউনিয়নের থেকে আসা কৃষক আজগার হোসেন জানান, আমার ৫ বছর বয়সের শিশু ছেলে রয়েছে। শীতের আভাসের জন্য চলে এসেছি ছেলের জন্য গরম পোশাক কিনতে। ঝুমকা বেগম বলেন,শীত তো এসেই পড়েছে। সকাল ও রাতে ভালোয় শীত পড়ছে।
শিশুদের তো গরম কাপড় লাগবেই। তাই গরম পোশাক কিনতে আসলাম। কথা হয় বিক্রিতাদের সাথে। ফুটপাতের দোকানী রাজন হোসেন বলেন, তিন দিন ধরে বেচা কিনা ভালো হচ্ছে। সবাই বাচ্চাদের কাপড় বেশি কিনছেন। অন্যান্য পোশাক আছে কিন্তু তার থেকে বাচ্চাদের কাপড় মহিলারা বেশি কিনছে।
শহরের একাধিক ব্যবসায়ী জানিয়েছেন, গত বছরের মতো এ বছরও শীত তেমন ছিল না। তবে তিন দিন থেকে শীত বাড়ায় শীতের কাপড় বিক্রি বেড়েছে। সেই সঙ্গে দামও কিছুটা বেড়েছে বলে স্বীকার করেছেন তাঁরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here