লাঙ্গলবন্দ তীর্থ-স্নানোৎসব সম্পন্ন, সপ্তাহ ব্যাপী বসছে লোকজ মেলা !

0
228

নারায়ণগঞ্জ বন্দর প্রতিনিধি: জেলা পুলিশের কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে লাখো লাখো পূণ্যার্থীদের অংশগ্রহনে সম্পন্ন হয়েছে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের পাপমোচন পুণ্যস্নান তীর্থ ভূমি  ব্রহ্মপুত্র নদে লাঙ্গলবন্দ স্নানোৎসব ।

মঙ্গলবার রাত থেকে শুরু হওয়া দুই দিন ব্যাপী স্নানোৎসব গতকাল বুধবার  রাত ১০ টা ৪৭ মিনিট ৫৩ সেকেন্ডে সমাপ্ত ঘটে। পূণ্যার্থীদের স্নানোৎসব শেষ হলেও এ উপলক্ষে সপ্তাহ ব্যাপী  লোকজ মেলা বসবে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।

মঙ্গলবার রাত থেকে বুধবার রাত পর্যন্ত পূণ্যার্থীদের মূখে উচ্চারিত,  হে মহা ভাগ ব্রহ্মপুত্র,”হে লৌহিত্য আমার পাপ হরণ কর,  এ মন্ত্র উচ্চারণ করে পাপ মোচনের আশায় লাখো লাখো পূণ্যার্থী আদি ব্রহ্মপুত্র নদে স্নানে অংশ নিয়েছেন।

স্নানের সময় ফুল, বেলপাতা, ধান, দূর্বা , হরিতকি, ডাব, আম পাতা ইত্যাদি পিতৃকুলের উদ্দেশ্যে নদের জলে তর্পণ করছেন আগত পূণ্যার্থীরা । মঙ্গলবার রাত ৯টা ১৮ মিনিটে লগ্ন শুরুর পর  স্নানের্থীদের ঢল নামে ব্রহ্মপুত্র নদে। প্রচুর সংখ্যক ¯œানোর্থীর আগমনে লাঙ্গলবন্দের তিন কিলোমিটার জুড়ে তিল ধারণের জায়গা ছিলনা।

বুধবার ভোর থেকে আরও  বাড়তে থাকে পূণ্যার্থীদের ভীর। ১৯টি ¯œানঘাটে দল বেধে, সপরিবারে কেউবা এককভাবে ধর্মীয় রীতি  রেওয়াজ অনুযায়ী ¯œানে অংশ নিচ্ছেন সনাতন ধর্মের অনুসারীরা। প্রতিটি স্নানঘাটেই রয়েছে ¯œানার্থীদের উপচে পড়া ভীড়।

বিশেষ করে রাজঘাট ও গান্ধীঘাটে ¯œানোর্থীদের সমাগম  চোখের পড়ার মত। ৭ বছর আগে রাজঘাটের কাছে ব্রিজ ভেঙ্গে পড়ার গুজবে হুড়োহুড়িতে ১০ জনের প্রাণহানী ঘটে। ঘটনাটি ¯œানোর্থীদের স্মরণ থাকলেও এ নিয়ে তাদের মধ্যে কোনো ভয় বা আতংক নেই বলে জানানতীর্থযাত্রীরা। এবার সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে সম্পন্ন হয়েছে স্নোনাৎসব।

পার্শ্ববতী দেশ ভারত, শ্রীলং কা, নেপাল থেকেও প্রচুর দর্শনার্থী লাঙ্গলবন্দ স্নানে অংশ নিয়েছেনপূণ্যার্থীদের  পদভারে মুখরিত হয়ে উঠেছে লাঙ্গলবন্দ তিন কিলোমিটার এলাকা। স্নানোর্থীরা জানান, ব্রহ্মপুত্র নদে স্নান করলে পাপ মোচন হয়, ব্রহ্মার কৃপালাভ করা যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here