মেয়র প্রার্থী লিটনের সমর্থককে পেটানোর অভিযোগ !

0
159
চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভানির্বাচনের বাকী আর মাত্র ১ সপ্তাহ। প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারণা তুঙ্গে। এরইমধ্যে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ উঠছে। চলছে হুমকি, হামলার ঘটনাও।
রবিবার দিবাগত রাতে মেয়র প্রার্থী সামিউল হক লিটনের সমর্থকের উপর হামলার অভিযোগ উঠেছে। এনিয়ে একটি ভিডিও ফেসবুকে ভাইরালও হয়েছে।
হামলার শিকার যুবক পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের রাজারামপুর বড় গোরস্থান এলাকার সমিরুল আলমের ছেলে জাহিদুল ইসলাম বলেন, রবিবার রাত পৌনে ১১টার দিকে তিনি জোসনারা পার্কের পাশের এক দোকানে চা খাচ্ছিলেন।
এমন সময় মেয়র প্রার্থী মোখলেসুর রহমানের চাচাতো ভাইয়ের ছেলে বাক্কারসহ পাঁচ-ছয়জন এসে তার উপর হামলা চালায়। জাহিদুল বলেন, আমি কারও কোন পোষ্টার ছিঁড়িনি।
তাও তারা পোষ্টার ছিঁড়ার মিথ্যা অভিযোগে আমাকে জোসনারা পার্কের গেটের সামনে নিয়ে গিয়ে বাক্কারসহ ১০-১৫ জন যুবক অমানবিক নির্যাতন চালায়।
জাহিদুল বলেন, লিটনের সমর্থক হবার অপরাধে তারা মিথ্যে অভিযোগ এনে তার উপর হামলা চালিয়ে নির্যাতন করেছে। তাদের অত্যাচারের ভয়ে তিনি থানায় কোন অভিযোগ করেননি।
জাহিদুল বলেন, তার উপর কেমন অত্যাচার হয়েছে, তা পার্কের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখলেই বুঝতে পারবেন। নির্যাতনের শিকার যুবক জাহিদুল সদর উপজেলা যুবলীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক বলে জানা যায়।
এবিষয়ে মেয়র প্রার্থী সামিউল হক লিটন বলেন, ‘চাঁপাইনবাবগঞ্জের নির্বাচনে মারামারি কাটাকাটির কোন অভিযোগ এর আগে ছিলনা। আমি শান্তিপ্রিয় মানুষ, আমি চাই একটি শান্তিপুর্ণ নির্বাচন।
আর যে অভিযোগে ছেলেটিকে মারা হয়েছে তা অযৌক্তিক একটি যুক্তি। তারা নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার চেষ্টা চালাচ্ছে। যা পৌর সভার জনগণ হতে দিবেনা।’
এবিষয়ে ৬নং ওয়ার্ডের নৌকার নির্বাচনী প্রধান সমন্বয়কারী ও সদর উপ জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম বলেন, এবিষয়ে তিনি কিছু জানেননা।
এবিষয়ে নৌকার প্রার্থী আলহাজ্ব মোখলেসুর রহমান বলেন, নৌকার জোয়ার দেখে বিচলিত হয়ে এবং নৌকার বিজয়কে প্রশ্নবিদ্ধ করতে এমন নাটক সাজানো হয়েছে। আমি শান্তিপ্রিয় মানুষ।
শান্তিপুর্ণ নির্বাচনে বিশাল ভোটে নৌকার বিজয় হবে। ইনশাআল্লাহ। এ ব্যাপারে সদর মডেল থানার ওসি মোঃ মোজাফফর হোসেনের নিকট জানতে চাইলে তিনি জানান, এবিষয়ে থানায় কোন অভিযোগ হয়নি।
অন্যদিকে, অন্য এক স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী ও কর্মী-সমর্থকদের উপর বিভিন্ন স্থানে হামলা, হয়রানী করছেন দূর্বৃত্তরা। তবে এখন পর্যন্ত থানায় বা নির্বাচন কর্মকর্তার কাছে কেউ লিখিত কোন অভিযোগ করা হয়নি বলে জানা গেছে।
এব্যাপারে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. মোতাওয়াক্কিল রহমান জানান, একজন স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী মৌখিকভাবে হামলা ও হয় রানীর বিষয়ে অভিযোগ জানিয়েছেন।
বিষয়টি নির্বাচন কমিশনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে জানানো হয়েছে। বিষয় গুলো জেনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তবে এখন পর্যন্ত কেউ লিখিত অভিযোগ দায়ের করেননি। ছোট খাটো কিছু সমস্যা ছাড়া
সবমিলিয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভায় নির্বাচনী পরিবেশ ভালো
রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here