মাফিয়া চরিত্রে আলিয়া ভাট

0
171
মুম্বাইয়ের কুখ্যাত মাফিয়া গাঙ্গুবাঈ কাথিয়াওয়াড়ের চরিত্রে অভিনয় করেছেন বলিউড অভিনেত্রী আলিয়া ভাট। তবে ছবি মুক্তির আগেই কাহিনীকে বিকৃত করার অভিযোগ করেছেন গাঙ্গুবাইয়ের দত্তক ছেলে বাবুজি শাহ। তিনি ওই সিনেমার স্থগিতাদেশ চেয়ে মামলা করেছেন।
তার দাবি, ওই সিনেমায় তার মায়ের ও পরিবারের প্রাইভেসি লংঘন করা হয়েছে। এছাড়া কাহিনীতে কিছু তথ্য ভুল দেয়া হয়েছে।
এই নিয়ে আলিয়া ভাট লেখক-সাংবাদিক হোসেন সাঈদী এবং পরিচালক সঞ্জয় লীলা বানসালি কে একুশে মে আদালতে হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সঞ্জয়-আলিয়ার এই ছবি মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল গত বছরেই।
জানা যায়, গত বছরের ১১ সেপ্টেম্বরে ছবিটি মুক্তি পাওয়ার কথা থাকলেও করোনামহামারীর কারণে তা মুক্তি পেতে দেরি হচ্ছে। এর মাঝেই পরিচালক সঞ্জয় লীলা বানসালি করোনায় আক্রান্ত হন। তার করোনা নেগেটিভ হওয়ার পর পুনরায় শুটিং শুরু হয়। আগামী ৩০ জুলাই বহুল আলোচিত এ সিনেমাটি মুক্তি পেতে যাচ্ছে।
গাঙ্গুবাঈ ছিলেন গুজরাটের কাঠিওয়ারের বাসিন্দা। ছোট বয়সেই তাকে জোর করে দেহ ব্যবসায় নামানো হয়। পরবর্তী কালে মুম্বাইয়ের কামতাপুর এলাকায় নিজের কোঠা চালাতেন। ছোটবেলায় গাঙ্গুবাঈ অভিনেত্রী হওয়ার স্বপ্ন দেখতেন। তবে মাত্র ১৬ বছর বয়সে গাঙ্গুবাঈ তার বাবার হিসাবরক্ষকের প্রেমে পড়েন এবং তাকে বিয়ে করে মুম্বাইয়ে চলে আসেন। ওই ব্যক্তিই তাকে মাত্র ৫০০ টাকার বিনিময়ে বিক্রি করে দেন বলে জানা যায়।
মাফিয়া ডন করিম লালার গ্যাংয়ের এক সদস্য গাঙ্গুবাঈকে ধর্ষণ করে, যার বিচার চেয়ে গাঙ্গুবাঈ করিম লালার সঙ্গে দেখা করেন এবং তাকে রাখি বেঁধে ভাই বানিয়ে নেন। আর এরপরই কামতাপুর এলাকা গাঙ্গুবাঈয়ের রাজত্ব শুরু হয়।
সেই সত্য ঘটনা অবলম্বনে হুসেন জাইদি লেখেন বিখ্যাত উপন্যাস ‘মাফিয়া কুইন অফ মুম্বাই’। ওই বইয়ের অবলম্বনে এই ছবি বানাচ্ছেন সঞ্জয়লীলা বনশালি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here