নারায়ণগঞ্জ বন্দরে ইউপি নির্বাচন নিয়ে নানা প্রকার শংকা!

0
48
নারায়ণগঞ্জ বন্দর প্রতিনিধি: আসন্ন ইউপি নির্বাচনকে সামনে রেখে বন্দরের ৫টি ইউনিয়নে বিতর্কিতরা চেয়ারম্যান ও মেম্বার পদে নির্বাচনের মাঠ চষে বেড়াচ্ছে।
তফসিল ঘোষনার পর বন্দরের বিভিন্ন ইউনিয়নে শুরু হয়েছে পোস্টার, ব্যানার, ফেস্টুনসহ নানান প্রচারণা।
নির্বাচনকে কেন্দ্র করে গ্রহনযোগ্য, সৎ ও জনদরদী প্রার্থীদের পাশা পাশি নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছে বিতর্কিত, বহুরুপী ও সমাজ বিরোধী কর্মকান্ডে লিপ্ত সমালোচিতরাও। ফলে নির্বাচনের আগেই নানা সংশয়ে রয়েছে ভোটাররা।
এদিকে নির্বাচনে পেশীশক্তির প্রভাব ও সন্ত্রাসীদের আনাগোনায় ভোটারদের মাঝে আতংক বিরাজ করছে। জানা গেছে, বন্দরের কলাগাছিয়া ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে এবারও নির্বাচন করছেন বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন প্রধান।
বিগত নির্বাচনে চেয়ারম্যান হওয়ার পর পর ভমিদস্যূতা, অবৈধ গ্যাস সংযোগ দিয়ে কোটি টাকা লোপাট, বালু ভরাট কাজে একচ্ছত্রআধিপত্যের কারণে বিতর্ক রয়েছে দেলোয়ার প্রধানকে নিয়ে।
ফেরাজিকান্দা থেকে কলাগাছিয়া বাজার, কল্যান্দী থেকে সাবদী, সেল সরদী, বালুচর, মাধব পাশাসহ কলাগাছিয়া ইউনিয়নের সবগুলো রাস্তাই চলাচলের অযোগ্য।
কলাগাছিয়া ইউনিয়নের রাস্তা ঘাট দেখলেই বোঝা যায় কতটুকু উন্নয়ন করেছেন তিনি। এছাড়াও তার বিরুদ্ধে রয়েছে অগ্রনী ব্যাংকের করা রিণখেলাপি মামলার ৬ মাসের সাজার আদেশ।
একই ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ থেকে তৃনমূলের সমর্থন পেয়েছে বন্দর থানা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক কাজিম উদ্দিন প্রধান। দুজনই কলাগাছিয়া ইউনিয়ন এলাকায় বসবাস করেন না।
একই ইউনিয়নের সংরক্ষিত মহিলা মেম্বার নাছিমা বেগমের বিরুদ্ধেও অন্যের জায়গা- জমি দখলের অভিযোগ। কলাগাছিয়া ইউনিয়নের মেম্বার জিয়াউদ্দিনের বিরুদ্ধেও রয়েছে বিস্তর অভিযোগ।
এলাকায় ভুমিদস্যূতা, মাদক সেবনসহ অনৈতিক কর্মকান্ডের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। বন্দর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান এহসান উদ্দিনের বিরুদ্ধে রয়েছে উন্নয়ন ব্যর্থতার অভিযোগ। এছাড়া বিগতদিনের নানা কর্মকান্ডও আলোচিত হচ্ছে সর্বত্র। অর্থ আত্মসাৎ মামলাও তিনি সমালচনার পরেন।
একই ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের ভালো কোন ক্যান্ডিডেট না থাকায় খালি মাঠে গোল দিতে পারে বলে ধারনা এলাকাবাসীর। মুছাপুরের বর্তমান চেয়ারম্যান মাকসুদ হোসেনের পরিবারের বিরুদ্ধে বিগত সময়ে নানা অভিযোগ রয়েছে।
অপরদিকে একই ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী মজিবর এর বিরুদ্ধে রয়েছে ব্যাপক অভিযোগ। ভূমিদস্যূতাসহ বিভিন্ন কারনে ব্যাপক সমালোচিত মজিবর। ধামগড় ইউনিয়নে আলমাস ভূইয়া মদন পুরের ইষ্টাউনের ম্যানেজার শাহজাহান হত্যা মামলার অন্যতম আসামী।
এছাড়া আলমাস ভূইয়া ঢাকায় বসবাস করে ধামগড়ে চেয়ারম্যান হওয়ার সপ্ন দেখছে। একই ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী মাসুম আহাম্মেদের চরম বিতর্ক রয়েছে ধামগড়ে। ভূমিদস্যূতা, পরিবেশ দূষনের ভূমিকাসহ ব্যাপক অভিযোগ রয়েছে মাসুমের বিরুদ্ধে। দুদকের তালিকায়ও রয়েছে তার নাম।
আসন্ন ইউপি নির্বাচনে সবচে আলোচিত মদনপুর ইউনিয়ন। বর্ত মান চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগ থেকে মনোনয়ন পাওয়া এম এ সালাম, তার বিরুদ্ধে রয়েছে ট্রেড লাইসেন্স বাণিজ্যসহ ভূমিদস্যূতা, পরিবেশ দূষনের ভূমিকাসহ ব্যাপক অভিযোগ রয়েছে সালামের বিরুদ্ধে।
তবে বিএনপি নেতা হিরন ইতিমধ্যে মাঠে নেমেছে। মদনপুরের ৫ নং ওয়ার্ডে মেম্বার পদে বহুল সমালোচিত খলিল মেম্বার এবারও নির্বাচন করছে। নির্বাচনে প্রার্থী হতে খলিল মেম্বার ইতিমধ্যে ব্যাপক প্রচারণা ও ব্যানার ফেষ্টুনে ছেয়ে দিয়েছে গোটা মদনপুর।
তবে বর্তমান পাঁচ চেয়ারম্যানকেই সমর্থন দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ¦ এ কে এম
সেলিম ওসমান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here