নায়িকারাও বিয়েশাদি করে, ঘর করে !

0
168

শোবিজের রঙিন দুনিয়াকে বেশ আগে বিদায় জানিয়েছেন আলোচিত মডেল-অভিনেত্রী সানাই মাহবুব। তারপর থেকে ধর্মে মনোযোগী হয়েছেন বলে জানান তিনি। কয়েক মাস আগে বিয়ে করেছেন এই অভিনেত্রী।

আপাতত সংসার ও ধর্মীয় অনুশাসনে জীবন যাপন করছেন বলে জানা যায়। তবে সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ সরব সানাই। নানা বিষয়ে কথা বলার জন্য এই প্ল্যাটফর্মকে ব্যবহার করছেন তিনি।

বুধবার (২৭ জুলাই) ইউটিউবারদের উদ্দেশ্যে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন সানাই মাহবুব। তিনি মিথ্যা তথ্য নিয়ে ভিডিও তৈরি থেকে বিরত থাকার অনুরোধ জানিয়ে নানা কথা বলেছেন।

লেখার শুরুতে সানাই মাহবুব বলেন—‘দয়া করে, নিউজের সত্যতা নিশ্চিত করে নিউজ করবেন। এগুলো আপনাদের কাছে কিছুই মনে না হতে পারে। কিন্তু আমরা যারা পাবলিক ফিগার তাদের সমস্যা হয়। কারণ আমাদের বাবা-মা, আত্মীয়-স্বজন অনেক সরল মনের মানুষ। তারা এসব মিডিয়ার মারপ্যাঁচ বুঝে না। তারা বুঝে না লাইমলাইট কী!

তারা বুঝে না কেন আমাদের নিয়ে নিউজ হয়! নব্বই দশকের এক নায়িকার ব্যক্তিগত জীবনের উদাহরণ টেনে সানাই মাহবুব বলেন—‘নব্বই দশকের একজন নায়িকার সঙ্গে আমার অনেক ভালো পরিচয়। এমনকী তার শ্বশুর-শ্বাশুড়ির সাথে আমার পরিচয় আছে।

গুলশানে থাকার সুবাদে আমি প্রায়ই বিকালে শাহাবুদ্দিন পার্কে হাঁটতে যেতাম। সেখানে তার সাথে পরিচয় হয়। এরপর আস্তে আস্তে ভালো সম্পর্ক তৈরি হয়। সম্প্রতি তাকে নিয়ে মিথ্যা ভিডিও বের হয়; যেগুলো তার পরিবারে বাজে প্রভাব ফেলে। সে ভেঙে পড়ে, কাছ থেকে একজন মানুষকে ভেঙে পড়তে দেখে আমার খারাপ লাগে।

এ রকম আরো অনেকেই এক সময় লোক চক্ষুর অন্তরালে চলে গেছেন নিজের প্রয়োজনে, পরিবারের তাগিদে। এক সময় সব মেয়ে সংসার করে; সে নায়িকা হোক, গায়িকা হোক, হোক পাইলট- সবাই সংসার করে, বাচ্চা নেয়, মা হয় এটাই স্বাভাবিক।

পাশাপাশি বলিউডের মাধুরী দীক্ষিতের সংসারের উদাহরণও টানেন সানাই। এ অভিনেত্রী বলেন—‘‘অমুক নব্বই দশকের সেক্সি, হার্টথ্রব নায়িকা এখন কি করছে দেখুন, অমুক হট আইটেম কাকে বিয়ে করলেন দেখুন, অমুক হার্টথ্রব নায়িকা দুই বাচ্চার মা হলেন’— এরকম শিরোনাম দিয়ে নায়িকা কিংবা মডেলদের যাপিত জীবনে সমস্যা সৃষ্টি করবেন না।’

অনুরোধ জানিয়ে সানাই মাহবুব বলেন—‘ভাই, ২০ বছর বয়সে একটা মেয়ে নায়িকা হতেই পারে। ৪৫ বছর বয়সেও কি সে নায়িকা থাকবে, থাকতে পারবে? তখন সে স্বাভাবিক নিয়মে ২/৩ বাচ্চার মা হবেন, বাচ্চাদের দেখশোনা করবেন- এটাই প্রকৃতির নিয়ম।

এটা অস্বাভাবিক কিছু না। যুগ যুগ ধরে মহানায়িকারাও এটাই করেছেন। বিয়েশাদি করেছেন, ঘর করেছেন, বাচ্চা জন্ম দিয়েছেন- এটা অস্বাভাবিক কিছু না তো! সুতরাং দয়া করে রংচং মাখানোর দরকার নাই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here