পাকিস্তানে নিষিদ্ধ ‘পাঠান’ !

0
96

পাকিস্তানে নিষিদ্ধ ‘পাঠান’। কিন্তু শাহরুখ খানের মোহ কি অত সহজে ত্যাগ করা যায়? শোনা যাচ্ছে, পাক মুলুকে অবৈধভাবেই ‘পাঠান’-এর স্ক্রিনিং চলছে। আর চুটিয়ে শাহরুখের সিনেমা দেখছেন পাক নাগরিকরা।নয় দিনে সাতশো কোটির ক্লাবে জায়গা করে নিয়েছে ‘পাঠান’।

অথচ এই ছবি মুক্তির আগেই ‘বয়কট পাঠান’ সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রেন্ডিং হয়েছিল। সেই ট্রেন্ডিংয়ে গা ভাসাতে দেখা গিয়েছে রাম কদম, নরোত্তম মিশ্রর মতো সর্বভারতীয় বিজেপি নেতাদেরও।

এহেন পরিস্থিতিতে নাকি ফিল্ম নিয়ে অযথা অপ্রয়োজনীয় মন্তব্য না করার পরামর্শ দলীয় নেতাদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী মোদি।  ‘বয়কট কালচার’ বিরুদ্ধেই মত প্রকাশ করেছেন কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর। অবশ্য যাবতীয় বিতর্কের রং এখন ফিকে। বক্স অফিসে সুনামি তুলেছে শাহরুখের কামব্যাক ছবি।

সারা বিশ্বেই ছড়িয়ে পড়েছে এই খ্যাতি। কিন্তু পাকিস্তানে পাঠান নিষিদ্ধ।অবশ্য ‘পাঠান’ প্রথম সিনেমা নয়, অনেকদিন আগে থেকেই পাক মুলুকে বলিউড সিনেমা নিষিদ্ধ। কিন্তু শাহরুখ খান ম্যাজিক আটকানো অত সহজ কম্ম নয়।

তাই তো বিভিন্ন জায়গায় অবৈধভাবেই পাঠান দেখানো হচ্ছে। আর জেলের পরোয়া না করেই তা দেখছেন পাক মুলুকের মানুষজন। শোনা যাচ্ছে, করাচির ডিফেন্স হাউসি অথোরিটিতে এভাবেই পাঠান দেখানো হয়েছে।

‘ফায়ারওয়ার্ক ইভেন্টস নামের এক সংস্থা এই অবৈধ স্ক্রিনিয়ের আয়োজন করছিল।যদিও ‘পাঠান’-এর মুক্তির সাত দিন পর সিন্ধ বোর্ড অফ ফিল্ম সেন্সর কড়া বার্তা দিয়ে জানিয়েছিল, অবৈধভাবে ছবির স্ক্রিনিং করা যাবে না।

কোনও ব্যক্তি বা সংস্থাকেও বলিউড সুপারস্টার শাহরুখ খানের সিনেমা দেখাতে বা দেখতে বারণ করা হয়ে ছিল। কিন্তু রাখে পাইরেসি তো মারে কে? এমনই অবস্থা হয়েছে পাকিস্তানের বলিউডপ্রেমী মানুষজনের। সূত্রের খবর মানলে, পাক মুলুকে পাঠান ডাউনলোড করেও দেখা হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here