রুহানীর মেডিকেল ভর্তির স্বপ্ন পুরণে দায়িত্ব নিলেন পৌর মেয়র মিন্টু

0
167
জাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহ- ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলার কুশনা গ্রামের দরিদ্রপরিবারের সন্তান রুহানী আক্তারের মেডিকেল ভর্তি হওয়ার স্বপ্ন পুরণ হচ্ছে। ঝিনাইদহ জেলা আওয়ামী লীগের সম্পাদক ও পৌরসভার মেয়র সাইদুল করিম মিন্টু তার ভর্তির দায়িত্ব নিয়েছেন। ৪ ভাই বোনের মধ্যে দ্বিতীয় রুহানী আক্তার।
ছোট বেলা থেকেই ইচ্ছে ডাক্তার হবে। মেধাবী হওয়ার কারনে পিইসিতে ট্যালেন্টপুলে বৃত্তিও পায় সে। মেধার বলে ময়মনসিং মেডিক্যালে চান্স পেয়েছে রুহানী। কিন্তু পরিবারের সামার্থ্য নেই তার পড়ালেখা করানোর। রুহানীর ব্যাপারে জানতে পেরে ঝিনাইদহ পৌরসভার মেয়র সাইদুল করিম মিন্টু দাঁড়ান তার পাশে।
মঙ্গলবার রুহানীকে তার দপ্তরে ডেকে পড়ালেখা চালিয়ে যাওয়ার আশ্বাস দেন সাইদুল করিম মিন্টু। কোট চাদপুর উপজেলার কুশনা গ্রামের রুহুল আমীনের মেয়ে হচ্ছে রুহানী আক্তার। রুহানীর শিক্ষিকা আসমা খাতুন জানান, সে ছোট বেলা থেকেইে মেধাবী। রুহানী উপস্থিত বক্তুতায় খুলনা বিভাগে তৃতীয় হয়েছে।
এছাড়া স্কুলে পড়াশুনার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের খেলাধুলায়, বক্তৃতায়, কবিতা আবৃতি সহ হাতের লেখায় পারদর্শী। আমারা সাধ্যমতো চেষ্টা করেছি ওর পাশে থাকার রুহানী আক্তার জানান, আমার দাদী ২০০৩ সালে অপারেশন থিয়েটারে মারা যান। সেই গল্প পরিবারের মুখে শুনে আমি ছোট বেলা থেকেই ডাক্তার হওয়ার স্বপ্ন দেখি। মেরিট লিষ্টে সারা বাংলাদেশের মধ্যে ৮৮০ সিরিয়ালে রয়েছি।
তিনি আরো বলেন, আমার স্বপ্ন ডাক্তার হয়ে সেবা করবো। আমার মা, বোন ও শিক্ষকদের অনুপ্রেরনাতেই আজ আমি এখানে আসতে পেরেছি। ঝিনাইদহ মেয়রের এমন সাহযোগীতা কথা আমি কোনদিনও ভুলবো না। আমি ও আমার পরিবার তার কাছে কৃতজ্ঞ।
ঝিনাইদহ মেয়র সাইদুল করিম মিন্টু বলেন, সমাজের পিছিয়ে পড়াদের সাহায্য করা আমার একান্ত ইচ্ছা। আমি রুহানীর মেডিক্যাল ভর্তি থেকে শুরু করে বই কেনা এমনকি হলে থাকার সিটের ব্যবস্থাও করে দেব। আর ঝিনাইদহ পর্যন্ত আসা যাওয়ার ফ্রী গাড়ী সেবা পাবে সে। তবে বর্তমানে ২০ হাজার টাকা আপাতত ভর্তির জন্য তাকে দেওয়া হলো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here