শিবালয়ে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর ভিডিও ছড়ানোর অভিযোগে গ্রেফতার ২

0
104

মানিকগঞ্জের শিবালয়ে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে দুই যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার (১১ এপ্রিল) দুপুরে প্রেস ব্রিফিংয়ে বিষয়টি জানিয়েছেন শিবালয় সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নূরজাহান লাবনী।

গ্রেফতাররা হলেন- শিবালয় উপজেলার শিবরামপুর গ্রামের তুহিনুজ্জামান তপুর ছেলে সামিউল ইসলাম ওরফে সামি (২২) ও ঘিওর উপজেলার শ্রীবাড়ী গ্রামের পল্লব সরকারের ছেলে তাপস সরকার (১৯)।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নূরজাহান লাবনী বলেন, গত ২ মার্চ বিকেলে বাড়ি থেকে খালাবাড়ি যাচ্ছিল ওই স্কুলছাত্রী (এসএসসি পরীক্ষার্থী)। শিবালয় উপজেলার টেপড়া এলাকা থেকে সামিউল ওরফে সামি ও তার সহযোগী তাপস সরকার জোর করে তাকে রিকশায় তুলে।

এরপর রাতে পৃথক জায়গায় আটকে রেখে তাকে কয়েক দফায় ধর্ষণ করেন তারা। এ সময় ধর্ষণের ভিডিওচিত্রও ধারণ করা হয়। মেয়েটির মোবাইল ফোন ছিনিয়ে রেখে তাকে ভোরে টেপড়া বাসস্ট্যান্ড থেকে একটি রিকশায় খালাবাড়ির উদ্দেশ্যে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

ঘটনা কাউকে জানালে ধারণকৃত ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয় ছাত্রীকে। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আরও বলেন, খালাবাড়ি ফিরে এ ঘটনা মেয়েটি জানালেও লোকলজ্জার ভয়ে বিষয়টি চেপে যায় পরিবার।

কিন্তু বখাটেরা ধর্ষণের ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে তাকে আবারো নানাভাবে উত্যক্ত করে আসছিলেন। দাবি করছিলেন টাকা ও স্বর্ণালংকারেরও।

এক পর্যায়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ধর্ষণের ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়া হয়।রোববার শিক্ষার্থীর মা বিষয়টি থানা পুলিশকে জানালে রাতেই অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত দুজনকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে ধর্ষণের ভিডিওসহ মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়েছে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা পুলিশের কাছে ঘটনা স্বীকার করেছেন। ভুক্তভোগী স্কুলছাত্রীর মা বাদী হয়ে শিবালয় থানায় মামলা করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here