শৈলকুপায় জনতা ব্যাংকে প্রতারক চক্রের হানা, আটক ১

0
106

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহ- ঝিনাইদহের জনতা ব্যাংক শাখা থেকে প্রতারণা করে চার লক্ষাধিক টাকা নিয়ে উধাও হয়েছে প্রতারক চক্রের ৩জন। বুধবার দুপুরে শৈলকুপা হাইস্কুল মার্কেটে অবস্থিত জনতা ব্যাংক শাখায় এ ঘটনা ঘটে। ব্যাংক কর্তৃপক্ষ সুমী বেগম নামে এক মহিলা প্রতারককে আটক করেছে।

বাকী সদস্যরা দ্রুত পালিয়ে গেছে। আটককৃত সুমি বেগম খুলনার তেরখাদা উপজেলার নলিয়ারচর ইউনিয়নের বলরধনা গ্রামের কামাল হোসেনের স্ত্রী। পুলিশ ও ব্যাংক কর্মকর্তারা জানান, বুধবার সকাল ১০টার দিকে শৈলকুপা জনতা ব্যাংক শাখায় অতিরিক্ত ভিড় ছিল।

ভিড়ের সুযোগ নিয়ে প্রতারক চক্রের একাধিক সদস্য লাইনে দাড়িয়ে বিদেশ থেকে তাদের নামে রেমিট্যান্স এসেছে বলে জানায়। এভাবে ৬ জনের মধ্যে ৪ জন প্রায় চার লাখের বেশি টাকা ভুয়া কাগজপত্র দেখিয়ে উত্তোলন করেন। প্রত্যেকের উত্তোলিত টাকার পরিমান ছিল ৯০ হাজার থেকে ১ লাখ ১০ হাজারের মধ্যে।

এক পর্যায়ে তাদের ভাউচার দেখে ব্যাংক কর্মকর্তাদের সন্দেহ হয়। তার আগেই প্রতারক চক্রের মহিলা সদস্যরা টাকা নিয়ে উধাও হয়ে যায়। এসময় পুলিশ ও ব্যাংক কর্মকর্তারা খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। তারা পৌর এলাকার বৈকালিক দুধ বাজার থেকে সুমি বেগম নামে ওই চক্রের এক সদস্যকে আটক করেন।

এ সময় উপস্থিত জনতা তাকে গরধোলায় দিতে থাকে। এব্যাপারে শৈলকুপা জনতা ব্যাংক শাখার ব্যবস্থাপক শাহীনুর ইমলাম বলেন, প্রতারক চক্র টাকা উত্তোলনের ২টা ধাপ নিজেরাই জাল সাক্ষর করে ক্যাশ কাউন্টারে জমা দিয়ে টাকা উত্তোলন করে।

ব্যাংক কর্মকর্তাদের অসাবধানতার কারনে এমনটি হয়েছে বলেও তিনি স্বীকার করেন। আটককৃত মহিলা ব্যাংক হেফাজতে আছে। সন্ধ্যার মধ্যে টাকা উদ্ধার না হলে বাকী সদস্যদের পরিচয় উদ্ধার করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে জানায় ব্যাংক ম্যানেজার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here