শরীয়তপুরে ছাত্রীদের শাসন করে শিক্ষক বহিস্কার

0
104

শরীয়তপুর প্রতিনিধি ॥ শরীয়তপুর জেলা শহরের রূপ নগরে সৃজনশীল বিদ্যাপীঠ নামক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্রীদের শাসন করার ঘটনায় উত্তেজনা সৃষ্টি হয়।

পরবর্তীতে বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ শিক্ষক ও অভিভাবকদের উপস্থিতিতে জরুরী সভা ডেকে সেই শিক্ষক কে বহিস্কার করার সিদ্ধান্ত নেয়। শিক্ষককে বহিস্কার করার পরে শিক্ষার্থীরা পুনরায় বিদ্যালয়ে আসতে শুরু করেছে।

বিদ্যালয় সূত্র জানায়, গত ৫ সেপ্টেম্বর সোমবার যথাযথ নিয়মে বিদ্যালয় চলছিল। দুপুর ১২ টা ২০ মিনিটে টিফিন শেষ হওয়ার ঘন্টা পড়ে। ঘন্টা শুনে সকল স্টুডেন্ট শ্রেণি কক্ষে প্রবেশ করলেও ষষ্ঠ শ্রেণির খাদিজা, সোনিয়া, রাইদা, ইচ্ছে ও প্রভা আসেনি।

প্রায় ৩০ মিনিট দেরিতে তারা শ্রেণি কক্ষে প্রবেশ করলে দায়িত্বরত রফিক স্যার তার হাতে থাকা স্কেল দিয়ে দেরিতে আসা ছাত্রীদের শাসন করে। এই সংবাদে দশম শ্রেণির ছাত্র ফয়সালের নেতৃত্বে রফিক স্যারকে লাঞ্চিত করা হয়। পরিস্থিতি সামাল দিতে বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ শিক্ষক ও অভিভাবকদের নিয়ে জরুরী সভায় বসেন।

অভিভাবকদের দাবীর ভিত্তিতে জরুরী সভা থেকে রফিক স্যারকে বিদ্যালয়ের সকল প্রকার দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। বিদ্যালয়ের ভাইস প্রিন্সিপাল মো. পারভেজ বলেন, অভিভাবকদের দাবীর ভিত্তিতে অভিযুক্ত শিক্ষককে বহিস্কার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার থেকে বিদ্যালয়ে শিক্ষার পরিবেশ ফিরে এসেছে। বিদ্যালয়ের একজন পরিচালক জানায়, শাসনের অভাবে শিক্ষার মান নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না। লাঠি বা বেতের ব্যবহার না থাকায় শিক্ষার্থীদের মধ্য বেপরোয়া ভাব প্রকাশ পেয়েছে।

ষষ্ঠ শ্রেণির ৬ ছাত্রী টিফিন ঘন্টা শেষ হওয়ার ২০ মিনিট পরে শ্রেণি কক্ষে প্রবেশ করায় রফিক স্যার তাদের শাসন করেছেন। এখন তাকে চাকুরি হারাতে হয়েছে। কয়েকজন অভিভাবক জানায়, শিক্ষা ব্যবস্থা এখন বানিজ্যিক হয়ে গেছে।

সরকারী বিদ্যালয়ের চাইতে অনেকগুন বেশী টাকা খরচ করে সন্তানদের প্রাইভেট স্কুলে পড়াই। সেখানে যদি স্যারের মানবাধিকার লঙ্ঘন করে সন্তানদের মারধর করে তাহলে শিক্ষার পরিবেশ পাব কোথায়। বাচ্চাদের শাসন করে না আদর ও ভালোবাসা দিয়ে পড়াতে হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here