টাঙ্গাইলের নাগরপুরে ধর্ষণের মামলা করায় পালিয়ে বেড়াচ্ছে প্রবাসীর স্ত্রী !

0
465
টাঙ্গাইলের নাগরপুরের মামুদনগর ইউনিয়নের শুনসী গ্রামে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন সৌদি প্রবাসীর স্ত্রী। বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) এ ঘটনায় ওই নারী বাদী হয়ে নাগরপুর থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।
এদিকে অভিযুক্ত ধর্ষকের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা তুলে নিতে হুমকি দেয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। মামলা সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে প্রবাসীর স্ত্রীকে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন মৃত সমেজ মিয়ার ছেলে আবদুল হাকিম (৪০)।
তার কুপ্রস্তাবে রাজি না হলে গত (৫ মে) রাতে ওই গৃহবধূর ঘরে ঢুকে ধর্ষণ করে হাকিম। পরে বিষয়টি কাউকে জানালে তাকে ও তার দুই সন্তানকে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে চলে যায়। এক দিকে লোক লজ্জার ভয়, অপরদিকে ধর্ষকের হুমকিতে গৃহবধূ ধর্ষণের বিষয়টি চেপে যান।
এর মধ্যে ওই গৃহবধূ গর্ভবতী হয়ে পড়লে হাকিম গত ১৬ জুলাই গৃহবধূর বাড়িতে এসে ৬ হাজার টাকা ও ওষুধ দিয়ে গর্ভপাতে বাধ্য করেন। গর্ভপাতের ফলে ধর্ষিতা গৃহবধূ অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে অসুস্থ হয়ে পড়েন। এ সময় তাকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
নাগরপুর থানার উপপরিদর্শক ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মনোয়ার হোসেন জানান, অভিযুক্তহাকিম পলাতক থাকায় তাকে গ্রেপ্তার করা যায়নি। হুমকির বিষয়টি তদন্ত করে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here