তরুণদের আইডল মাহমুদুল হাসান সোহাগ !

0
91

 

শাহিনুর ইসলাম প্রান্ত, লালমনিরহাট প্রতিনিধি: তরুন প্রজন্মের কাছে ‘মাহমুদুল হাসান সোহাগ’ অনেক জনপ্রিয় একটি নাম। তিনি নিজেকে ঘিরে নয়, স্বপ্ন দেখেন দেশকে নিয়ে, মানুষকে নিয়ে ও হাতীবান্ধা-পাটগ্রামকে নিয়ে। স্বপ্ন বাস্তবায়নের পথে ছুটে চলেছেন অভিরত।

নেতৃত্বতৃ দেয়ার ক্ষমতা সকলের থাকে না। হাতে গোনা কিছু মানুষের মধ্যে এই ক্ষমতাটি থাকে। এজন্য প্রাচীনকালে মনে করা হতো, নেতা যারা হতে পারে তারা জন্ম থেকেই এই ক্ষমতাটি অর্জন করে থাকে। কিন্তু পরবর্তীতে দেখা যায় নেতা হওয়ার ক্ষমতাটি সবাই জন্ম থেকে অর্জন করে আসে না বরং এমন অনেকেই আছে যারা নিজেদের প্রবল প্রচেষ্টার মাধ্যমে অনেকের মধ্য থেকে নিজেকে নেতা হিসেবে তুলে ধরে।

আদর্শ ও ন্যায় নীতির মধ্যে থেকে এলাকার মানুষের পাশে থাকাই এ আদর্শ মানুষটির লক্ষ্য। কোন কিছুর লোভ লালসা আর হিংসা তাকে আক্রমন করতে পারেনি। এসব কারনেই এলাকার অনেকেই প্রশংসা করেন তার।

এলাকার উন্নায়ন করতে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান সোহাগ। তার সততা দেখে কিছু হিংস্র মনোভাবের নেতা কর্মী তাঁর বিরুদ্ধে বিভিন্ন ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে কিন্তু দমিয়ে রাখা যাচ্ছে না তাকে। দলমত নির্বিশেষে সাধারণ নাগরিকদের সেবা নিশ্চিত করতে আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি।

তিনি করোনা কালেও মানবতার পরিচয় দিয়েছেন। অসহায় মানুষের মাঝে ত্রাণ, মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ইত্যাদি প্রতিনিয়ত দুই উপজেলায় দিন-রাত বিতরণ করেছেন। করোনায় তিনি টিম-ইমার্জেন্সী নামক একটি সামাজিক সংগঠন প্রতিষ্ঠা করেছেন। সেই সংগঠনের সকল সদস্য করোনায় মানুষের পাশে সব সময় ছিলেন।

করোনায় কারো সমস্যা হলেই দিন রাত তাদের কে সহযোগিতা করার জন্য সদস্যরা নিয়োজিত ছিল। তিনি করোনায় খাদ্যসামগ্রী বিতরনের পাশাপাশি সবজিও বিতরন করেছেন। এছাড়াও তিনি বৃক্ষরোপন, মুমুর্ষ রোগীদের রক্ত দানের ব্যবস্থা, শিক্ষা উপকরণ বিতরণ, বিভিন্ন খেলাধুলার সামগ্রী বিতরণ করেন। বন্যা দূর্গতদের জন্য নিজেই পানিতে ভিজে ঘরে ঘরে খাবার পৌছে দেন তিনি।

মাহমুদুল হাসান সোহাগ বলেন, মানুষের সেবা করেই আত্মতৃপ্তি পাই। কারো কোনো উপকার করতে পারলে নিজের কাছেও অনেক ভালো লাগে। তাই নিজেকে আর্তমানবতার সেবায় নিয়োজিত করেছি। এভাবেই সারাজীবন জনগণের সেবা করে পাশে থাকতে চাই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here