উন্নয়ন না দেখলে চোখে চশমা নিন-প্রধানমন্ত্রী

0
125

পদ্মা সেতু, মেট্রো রেল, কর্ণফুলী টানেল, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের মতো উন্নয়ন প্রকল্পগুলো দেখতে না পাওয়ায় বিএনপির নেতাদের চোখ পরীক্ষা করার পরামর্শ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হসিনা।

মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে রোববার (২৭ মার্চ) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে এ পরামর্শ দেন প্রধানমন্ত্রী। গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আলোচনা সভায় যুক্ত হন তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘কোনো উন্নয়ই নাকি দেশে হয়নি। এখন আমাদের বলতে হয়, আমরা একটা আই ইনস্টিটিউট করেছি। যারা বলে উন্নয়ন হয়নি, তাদের চোখের পরীক্ষা করাতে হবে।’

তিনি বলেন, শতভাগ বিদ্যুতায়ন, এটা তাদের চোখে পড়ে না। আজকে ডিজিটাল বাংলাদেশ তারা ব্যবহার করছে, এটা উন্নয়ন না? পদ্মা সেতু, মেট্রো রেল, কর্ণফুলী টানেল, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র, দারিদ্রের হার হ্রাস—এসব উন্নয়ন তাদের চোখে পড়ে না।’

খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন হয়েছে, এটাও বিএনপির চোখে পড়ে না, অভিযোগ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘১৯৯৮ সালে ভয়াবহ বন্যা হলো। বিশ্বব্যাংক, বিবিসিসহ অনেকে বললো, অন্তত ২ কোটি মানুষ মারা যাবে।

আমরা বলেছিলাম, একটি লোকও না খেয়ে মারা যাবে না। এত দীর্ঘসময় বন্যা কখনো থাকেনি বাংলাদেশে। পানি শুকিয়ে যাওয়ার সাথে সাথে ত্বরিত গতিতে বিভিন্ন  পদ ক্ষেপ নেওয়ার কারণে রোগ ছড়ায়নি।

ধানের চারা এবং সার প্রত্যন্ত অঞ্চলের কৃষকের কাছে পৌঁছে দিয়েছিলাম। ওই সময়েই আমরা খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছিলাম। তখন তাদের অর্থমন্ত্রী সাইফুর রহমান বলেছিল, খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন হলে বিদেশ থেকে সহায়তা পাওয়া যাবে না।

খালেদা জিয়া হাততালি দিয়ে সেটা সমর্থন দিলো। সেও তার বক্তব্যে এটা বলেছিলো। তার জবাবে আমি বলেছিলাম, বঙ্গবন্ধু বলেছেন, ভিক্ষুক জাতির ইজ্জত থাকে না। আমরা ভিক্ষুক জাতি হয়ে থাকতে চাই না।’

দেশে উন্নত যোগাযোগ নেটওয়ার্ক গড়ে উঠেছে, উল্লেখ করে তিনি বলেন,আমরা আমাদের নির্বাচনী ইশতেহারে যা বলেছি, তা বাস্তবায়ন করে যাচ্ছি।

গ্রামে কোনো মানুষের ঘরে যাতে অভাব না থাকে, সেজন্য প্রকল্প বাস্তবায়ন করে সরকার এগিয়ে যাচ্ছে, জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আজকে প্রত্যেক গ্রামে কর্মচাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে। সেখানে মানুষের আর অভাব নেই।’

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here