জেড এইচ.সিকদার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন ভিসি লোকমান হাকিম

0
232
শেখ সাইফুল ইসলাম কবির  :কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের প্রফেসর ড. তালুকদার মো. লোকমান হাকিমকে শরিয়তপুর জেড এইচ.সিকদার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য পদে নিয়োগ দিয়েছে সরকার। বুধবার মহামান্য রাষ্ট পতির অনুমোদনক্রমে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের পার-১ এর উপসচিব শামিমা বেগম প্রজ্ঞাপন জারী করেন।
মহামান্য রাষ্টপতি চ্যান্সলর বেসরকারি  বিশ্ববিদ্যালয় আইন ২০১০ আর ৩১ এর ১ ধারায় অনুযায়ী কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের প্রফেসর  ড. তালুকদার মো. লোকমান হাকিমকে শরিয়তপুর জেড এইচ. সিকদার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শরিয়ত পুর এর উপাচার্য পদে যোগদানর তারিখ থেকে আগামী চার বছরের জন্য নিয়েগে মহামান্য রাষ্টপতি ও চ্যান্সেলর সম্মতি প্রদান করেছেন।
২০১৯ সালে উপাচার্য প্রফেসর ড.জান্নাতুল ফেরদৌস মেয়াদ শেষ হওয়ার পূর্বেই ব্যাক্তিগত কারনে উপাচার্য পদথেকে পদত্যাক করে অব্যাহতিনেন। সেই থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ এ পদটি শূন্য ছিল। প্রফেসর ড. তালুকদার মো. লোকমান হাকিম জেড এইচ.সিকদার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩য় ভাইসচ্যান্সেলর। তিনি আগামী বুধবার আনুষ্ঠানিক ভাবে দায়িত্বভার গ্রহণ করবেন বলে রেজিস্ট্রার কার্যালয় থেকে জানা যায়।
ড. তালুকদার লোকমান হাকিমকে ১৯৬৪ সালের ৩০ ডিসেম্বর বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জের পুটিখালী ইউনিয়নের ভাটখালী গ্রামে এক সভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা মরহুম সিরাজ উদ্দিন তালুকদার  ছিলেন বিশিষ্ট সমাজসেবক, তিনি খুলনার হ্যানয় রেলওয়ে হাই স্কুল থেকে ১৯৮০ সালে এসএসসি, খুলনা এম.এম. সিটি কলেজ  থেকে ১৯৮৯ সালে এইচএসসি, ১৯৯১ সালে রাজশাহী
বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি  স্নাতক (সম্মান),ও ১৯৯৩ সালে মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করেন এবং ২০০৫ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের প্রফেসর  ইমেরিটাস ড. এ কে এম ইয়াকুব আলীর তত্বাবাধনে কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে  পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন।
তিনি ৫ অক্টবর ১৯৯৫ সালে ১৫ তম সাধারন বিসিএস শিক্ষা ক্যাডারে চতুর্থ তম স্থান অধিকার করে নিলফামারী সরকারী কলেজে প্রভাষক পদে যোগদানের মধ্য দিয়ে চাকরীজীবন শুরু করেন ,এরপর  ৮ জূলাই ১৯৯৬ সালে কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের প্রভাষক পদে যোগদান করেন। ১৯৯৯ সালে তিনি সহকারী অধ্যাপক, ২০০৫ সালে সহযোগী অধ্যাপক এবং ২০০৯ সাল থেকে ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের  অধ্যাপক পদে পদন্নতি পান সেই থেকে দায়িত্বরত আছেন।
তিনি বিভিন্ন মেয়াদে বিশ্ববিদ্যালয়ের ফ্যাকাল্টি মেম্বর, একাডেমি কাউন্সিল সদস্য, সহকারী প্রক্টর, প্রভোষ্ট, প্রভোষ্ট কাউন্সিলের চেয়ারম্যান, ছাত্র উপদেষ্টা, চেয়ারম্যান, প্রক্টর, কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু পরিষদের, যুগ্ন সম্পাদক, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সস্পাদক দায়িত্ব পালন করেন।
এ ছাড়া ১৯৯০-১৯৯২সাল সাল পযর্ন্ত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. শহীদ শামসুজোহা শাখার বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক ও  সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন ছিলেন । উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ পাওয়ায় তাকে আভিনন্দন জানিয়েছন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য বাগেরহাট-৪ আসনের সংসদ সদস্য এ্যাডভোকেট আমিরুল আলম মিলন, খুলনা -৬ আসনের সংসদ সদস্য  আক্তারুজ্জামান বাবু, সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য এ্যাডভোকেট গেøারিয়া ঝর্না সরকার, মোড়েলগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাড.শাহ-ই-আলম বাচ্চু, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু পরিষদের  সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মাহবুবুল আরফিন, বাগেরহাট নার্গিস মেমোরিয়াল নার্সিং কলেজের ব্যাবস্থাপনা পরিচালক ফিরোজুল ইসলাম, বাগেরেহাট জেলার মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ও মোল্লারহাট উপজেলা চেয়ারম্যান শাহিনূল হক শানা, ভোরের কাগজ প্রতিবেদক মিজানূর রহমান আকন, বাগেরহাট  প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক তালুকদার আবদুল বাকি, জাতীয় মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের  চেয়ারম্যান শেখ সাইফুল ইসলাম কবির প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here